অভিবাসীদের ফিরিয়ে নিতে ফ্রান্সকে আহ্বান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর

Share Now..

ইংলিশ চ্যানেলে ইনফ্লেটেবল ডিঙি ডোবার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৭ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে পরস্পরকে দোষারোপ করছে যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। এমন অবস্থায় ফরাসী সরকারকে অভিবাসীদের ফিরিয়ে নিতে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রোকে চিঠি দিয়ে এক আহ্বানে বরিস বলেন, ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে যুক্তরাজ্য পৌঁছানো অভিবাসীদের ফিরিয়ে নিতে হবে। চিঠিতে গত বুধবার ২৭ জন প্রাণ হারানোর মতো বিপর্যয় এড়াতে ৫টি পদক্ষেপ নেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, অভিবাসী মৃত্যুর ঘটনায় একে অপরকে দোষারোপ করছে ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্য। ফরাসী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড ডারমানিন বলেছেন, ‘যুক্তরাজ্যের অভিবাসী ব্যবস্থাপনা খুবই খারাপ। এটা একটি আন্তর্জাতিক সমস্যা। আমরা আমাদের বেলজিয়ান, জার্মান এবং ব্রিটিশ বন্ধুদের বলি, তারা যেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পাচারকারীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাদের সাহায্য করে।’

ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল জানিয়েছেন, তিনি ডারমানিনের সঙ্গে কথা বলবেন। এর আগে, ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, অভিবাসীদের পারাপার বন্ধ করতে ফ্রান্সের আরও কিছু করা উচিত।
ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ইংল্যান্ডে যাওয়ার পথে অন্তত ২৭ শরণার্থী অভিবাসী মারা গেছে। গত বুধবার (২৪ নভেম্বর) ফ্রান্সের উত্তর উপকূলে ঘটনাটি ঘটে। ফরাসি পুলিশ এবং ক্যালাইসের মেয়র নাতাচা বাউচার্ট বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিএফএম টেলিভিশনকে মেয়র জানান, মৃতের সংখ্যা ২৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.