অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠাতে সায় দিলেন ব্রিটিশ হাইকোর্ট

Share Now..

উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠানো হবে বলে শুক্রবার জানিয়ে দিলেন লন্ডন হাইকোর্ট। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

আফগানিস্তান ও ইরাকযুদ্ধ সংক্রান্ত কয়েক লাখ মার্কিন নথি প্রকাশ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির মামলা রয়েছে। গত জানুয়ারি মাসে ব্রিটেনের নিম্ন আদালত অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক অ্যাসাঞ্জের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। তার পক্ষে রায় দিয়ে বলেছিল, অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়া হবে না। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে যায় মার্কিন প্রশাসন। সেখানে অ্যাসাঞ্জের চিকিৎসা নিয়ে আশ্বাস দেয় যুক্তরাষ্ট্র। বিচারপতি চিফ জাস্টিস লর্ড বার্নেট বলেন, এর ফলে উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতার মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে আর ঝুঁকি থাকছে না।

অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীরা ব্রিটিশ আদালতের এই রায়কে ‘বিচারের নামে প্রহসন’ বলে উল্লেখ করেছেন। অ্যাসাঞ্জের বাগদত্তা স্টেলা মরিস জানান, ‘জুলিয়ানকে যে দেশ হত্যার পরিকল্পনা করেছিল, সেখানে তাকে হস্তান্তর করা কীভাবে সম্ভব। আমরা যত দ্রুত সম্ভব এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করব।’ রায়ের পরে অ্যাসাঞ্জ বলেন, প্রত্যর্পণ আটকে দিতে আমাদের লড়াইয়ে বিজয়ের বছরখানেক পর আবার আমাকে এখানে দাঁড়িয়ে কথা বলতে হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, তথ্য ফাঁসের পর প্রাণ বাঁচাতে প্রথমে ইকুয়েডর দূতাবাসে আশ্রয় নিয়েছিলেন অ্যাসাঞ্জ। পরে ইকুয়েডর তাকে আশ্রয় দিতে না চাইলে ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে অ্যাসাঞ্জকে গ্রেপ্তার করে ব্রিটিশ পুলিশ। বর্তমানে তিনি লন্ডনের বেলমার্শ কারাগারে বন্দি। লন্ডন হাইকোর্টের সামনে অ্যাসাঞ্জ সমর্থকদের বিক্ষোভ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.