আভিজাত্যে মোড়ানো খালিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম

Share Now..


কাতারের মাটিতে বিশ্ব ফুটবলের মহারণ বসতে বাকি আর মাত্র ১৫ দিন। এর মধ্যেই সকল প্রস্তুতি শেষ করেছে কাতারের কর্তৃপক্ষ আর বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’র মহারণে দলগুলো কাতারজুড়ে যে ৮টি স্টেডিয়ামে বিশ্ব শ্রেষ্টত্বের লড়াইয়ে নামবে প্রস্তুত হয়ে গেছে সেগুলোও। ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলো তৈরিতেই খরচ হয়েছে সিংহভাগ অর্থ।তৈরি কাতার, তৈরি স্টেডিয়াম, ৩২টি দলও নিজেদের গুছিয়ে নেওয়ার শেষ সময়ের কাজে ব্যস্ত। অপেক্ষা শুধু বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামের সবুজ ঘাসে বল পায়ে কিক-অফের। তার আগে চলুন জেনে নেওয়া যাক ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলো সম্পর্কে।

কাতার বিশ্বকাপের ৮ স্টেডিয়াম নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ চতুর্থ পর্বে থাকছে খলিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম নিয়ে বিস্তারিত।

খালিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম, দোহা (৪০ হাজার) :

মধ্য দোহা থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত আল রাইয়ানের সবচেয়ে প্রাচীন এবং আইকনিক স্টেডিয়ামগুলোর একটি হচ্ছে খলিফা ইনাটারন্যাশনাল স্টেডিয়াম। কাতার ২০২২ বিশ্বকাপের স্বত্ত পাওয়ার সময় এটিই ছিলো কাতারের একমাত্র ফুটবল ভেন্যু।
১৯৭৬ সালে নির্মিত এই স্টেডিয়ামটি বিশ্বকাপের জন্য নতুন করে ২০১৭ সালে সংস্কারও করা হয়েছে। ৪০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার এই স্টেডিয়ামে তৃতীয় স্থান নির্ধারণকারী প্লে-অফ রাউন্ড সহ মোট আটটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২১ নভেম্বর খলিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামেই ইরানের বিপক্ষে ফেভারিট ইংল্যান্ড তাদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *