চীনের ফ্লাইটে মেং, কানাডায় ফিরছেন স্পেভার-কোভরিগ

Share Now..


কানাডায় বন্দিদশা থেকে মুক্তি পাওয়া হুয়াওয়ের কর্মকর্তা মেং ওয়াংজু চীনের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। ভ্যানকুবার আদালতে শুনানি শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই তিনি বিমানে করে চীনের শেনজেন শহরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। কয়েক ঘণ্টা পরে ঘোষণা আসে, চীনে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে অভিযুক্ত দুই কানাডীয় মাইকেল স্পেভার এবং মাইকেল কোভরিগও মুক্তি পেয়েছেন।শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এসব জানিয়েছে আল জাজিরা ও ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি। জানা গেছে, একটি অনির্ধারিত চায়না-৭৭৭ ফ্লাইটে কানাডার স্থানীয় সময় বিকেল চারটা ২৫ মিনিটে ভ্যানকুবার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন মেং। এদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, স্পেভার ও কোভরিগ দুজনেই শনিবার ভোরে কানাডায় আসবেন। তাদের সঙ্গে রয়েছেন চীনে কানাডার রাষ্ট্রদূত ডমিনিক বার্টন।

মেংয়ের মুক্তির বিষয়ে চীন এখনো আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেয়নি। কিন্তু পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন সিনিয়র মুখপাত্র লিজিয়ান ঝাও তার একটি সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, বাড়িতে স্বাগতম।

এর আগে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ইস্যু করা এক ওয়ারেন্টের ফলে ভ্যাঙ্কুভার বিমানবন্দরে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে গ্রেপ্তার হন ৪৯ বছর বয়সী মেং। অভিযোগ ছিল, ইরানে হুয়াওয়ে’র ব্যবসা সম্পর্কে এইচএসবিসিকে বিভ্রান্ত করার লক্ষ্যে ব্যাংক জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছিলেন তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, স্কাইকম নামের এক অনানুষ্ঠানিক সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ইরানের টেলিকম কোম্পানির সঙ্গে ব্যবসা করছে হুয়াওয়ে। এতে ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) দেওয়া নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করা হয়েছে। হুয়াওয়ের দাবি, মেং ওয়ানঝু অন্যায় কিছু করেছেন বলে তাদের জানা নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.