ঝিকরগাছায় কপোতাক্ষ নদে অপরিকল্পিত সেতু অপসারণ ও নদ বান্ধব সেতু নির্মানের দাবীতে মানববন্ধন

Share Now..

নদী বাঁচাও, দেশ বাঁচাও এই স্লোগানকে সামনে রেখে যশোরের ঝিকরগাছায় কপোতাক্ষ নদের উপর অপরিকল্পিত নদ মরা সেতু অপসারণ করে অভিযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে ক্ষতিপূরণ আদায় করে পুনরায় নদ বান্ধব সেতু নির্মানের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় কপোতাক্ষ বাঁচাও আন্দোলনের ঝিকরগাছা কমিটির আহবায়ক আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, নদী আন্দোলনের প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ, স্থানীয় দৈনিক সত্যপাঠ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ শাহাবুদ্দিন আলম, কপোতক্ষ বাঁচাও আন্দোলনের আহবায়ক আনিল বিশ্বাস, ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলনের নেতা জিল্লুর রহমান ভিটু, কপোতক্ষ বাঁচাও আন্দোলনের নেতা মাষ্টার আব্দুর রশিদ, এ্যাড: আমিনুর রহমান হিরু, বিমল কুমার ঘোষ, সামছুল আলম বাসার, ডা: বিল্লাল হোসেন, সুভাষ ভক্ত, মতিয়ার রহমান, মোখলেছুর রহমান কেটি প্রমুখ। মানববন্ধন পরিচালনা করেন, উদিচী শিল্প গোষ্ঠির শাহিনুর রহমান শাহিন।
মানববন্ধনে নদী আন্দোলনের প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের এই কপোতাক্ষ নদকে নিয়ে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের লেখা কবিতা কপোতাক্ষ নদ। কবিতায় কবি তার আত্মোপলব্ধিজনিত প্রগাঢ় স্বদেশপ্রেম যুগ-যুগান্তরের সীমানা পেরিয়ে বাঙালি হৃদয়ে জাগীয়ে তুলেছে। আর কবির কবিতার মূলভাব কে মাটির সাথে মিশিয়ে দিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিবর্গ তাদের স্বার্থ হাসিল করতে সেতু নির্মাণে তারা ব্যাপক অনিয়ম শুরু করেছে। কিন্তু এই অনিয়মন যশোর জেলাবাসী মেনে নিতে না পারায় আজ আমাদের রাস্তায় দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করতে হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যখন দূর্নীতির বিরুদ্ধে জিড়ো টলারেন্স করতে কঠোর ভাবে কাজ করে চলেছেন। ঠিক সেই সময়ে একটি কুচক্রীমহল কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু তৈরীর নক্সা পরিবর্তন করে সরকারি নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে ব্যাপক হারে অনিয়মে পরিচালনা করছে। ঝিকরগাছার কপোতাক্ষ নদের উপর অপরিকল্পিত নদী মরা সেতু অপসারণ করে অভিযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে ক্ষতিপূরণ আদায় করে পুনরায় নদ বান্ধব সেতু নির্মানের দাবী জানিয়ে তিনি আরো বলেন, আগামী ২৯ আগষ্ট রবিবার ঝিকরগাছা সেতুর উপরের আবারও মানববন্ধ ও সমাবেশ সফল করার আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *