ট্রাভিস হেডের সেঞ্চুরিতে গ্যাবা টেস্টে অজিদের দাপট

Share Now..

ব্রিসবেনের গ্যাবায় শুরু হয়েছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ও সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার ঐতিহ্যবাহী অ্যাশেজ সিরিজ। মাত্র দুই দিনের খেলা শেষ হয়েছে। এর মধ্যেই এই টেস্টের নিয়ন্ত্রণ অজিদের দখলে চলে গেছে। অনেক বিতর্কের পরও দ্বিতীয় দিন শেষে ১৯৬ রানে এগিয়ে রয়েছে স্বাগতিকরা।

১১২ রান করে অপরাজিত আছেন ট্রাভিস হেড ও ১০ রানে ব্যাট করছেন মিচেল স্টার্ক। আর নিজেদের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৪৩ রান। আগামীকাল (১০ ডিসেম্বর) তৃতীয় দিন তারা আবারও ব্যাটিংয়ে নামবে। এছাড়া আউট হওয়ার আগে ৯৪ রান করেছেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাশ লাবুশানে করেন ৭৪ রান।
এদিন, নতুন এক বিতর্কে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে ম্যাচটি। ঘটনাটি ঘটে যখন স্বাগতিকদের স্কোর ১ উইকেটের বিনিময়ে ৩৭ রান। তখন ব্যাট করছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও বোলিংয়ে আসেন দীর্ঘদিন পর ক্রিকেটে ফেরা ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। এই ইংলিশ পেসারের ওভারের প্রথম চারটি বলেই তার পা সীমানা অতিক্রম করে ফেলে। কিন্তু আম্পায়ারের নজরে পরে চতুর্থ বলটি। ওই বলেই আউট হন ওয়ার্নার। তখন রিপ্লেতে দেখা যায় এটি নো-বল। ফলে সে যাত্রায় বেঁচে যান অজি ওপেনার।এরপর দেখা যায়, আগের তিনটি বলও নো-বল ছিল। কিন্তু আম্পায়ারের নজরে আসেনি। যা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি ও সমালোচনা শুরু হয়েছে। এদিকে, এ ঘটনায় আম্পায়ারকেই দোষ দিচ্ছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক রিকি পন্টিং। তিনি বলেন, ‘কেউ যদি এগুলো পর্যবেক্ষণ করার পরও নো-বল না দেয়, তাহলে সেটা দুঃখজনক। এগুলো নো-বল ছিল বলেই মনে হয়। প্রথম বলটি আম্পায়ার ধরিয়ে দিলে হয়তো স্টোকস পরেরগুলো শুধরে নিতো।’এর আগে প্রথম দিন অজি বোলারদের তোপের মুখে মাত্র ১৪৭ রান করেই অলআউট হয়ে যায় ইংলিশরা। এরপর বৃষ্টির কারণে আর খেলা মাঠে গড়ায়নি। সর্বোচ্চ ৫ উইকেট শিকার করেছেন অস্ট্রেলিয়ার নতুন অধিনায়ক প্যাট কামিন্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published.