দুই দিনে ৪১ বিএনপি নেতাকর্মী গ্রেফতার ঝিনাইদহ আ’লীগ অফিসের পেছনে ককটেল বিস্ফোরন থানায় মামলা

Share Now..


স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগ অফিসের পেছনে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে পর পর চারটি ককটেলের বিস্ফোরণ হলেও কোন হতা-হতের ঘটনা ঘটেনি। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫ টি ককটেল উদ্ধার করে। রাত দেড় টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ককটেল বিস্ফোরণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে হঠাৎ ৪ টি বোমার বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আ’লীগ অফিসের পেছন থেকে ৫ টি ককটেল উদ্ধার করে। নিরাপত্তা প্রহরী বাবলু মিয়া বলেন, রাত দেড় টার দিকে হঠাৎ আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের পিছনে বিকট শব্দ হয়। পর পর ৪ টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে। খবর শুনে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রানা হামিদ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এ ঘটনার নিন্দা জানান। এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার সকালে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে শহরের পায়রা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু, সদর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, ঢাকায় বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে ঝিনাইদহে ও অস্থীতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে বিএনপি এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে এই সাথে যারা জড়িত তাদের শনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী জানাচ্ছি। ককটেল বিস্ফোরণের সাথে বিএনপিকে দায়ী করে আ’লীগ নেতার বক্তব্য খন্ডন করে ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডভোকেট এম এ মজিদ বলেন, আ’লীগ নিজেরোই এই ককটেল হামলার সঙ্গে জড়িত। কারণ যে এলাকায় ককটেল বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটেছে সেখানে আ’লীগের নেতাকর্মীরা ছাড়া কেউ যায় না। তাছাড়া পাশেই রয়েছে থানা। বিএনপি নেতাকর্মীদের হয়রানী করতেই আ’লীগ এই নাটক সাজিয়েছেন বলে তিনি দাবী করেন। এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, হামলার ঘটনায় জেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জমানান আসাদ শুক্রবার দুপুরে বাদী হয়ে মামলার করেছেন। মামলায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করা হয়েছে। এদিকে ঝিনাইদহের বিভিন্ন গ্রাম থেকে শুক্রবার ১৫ জন বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ১০ জন, কালীগঞ্জে দুই জন, কোটচাঁদপুরে ১ জন ও মহেশপুর থেকে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা সবাই বিএনপির কর্মী বলে পুলিশের বিশেষ শাখা (ডিএসবি) থেকে বলা হয়েছে। দুই দিনে জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে ৪১ জনকে গ্রেফতারা করা হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *