প্রতিবন্ধীদের জন্য তৈরি হচ্ছে আন্তর্জাতিকমানের ক্রীড়া কমপ্লেক্স

Share Now..

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী তথা বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু, অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধীদের জন্য আন্তর্জাতিকমানের ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

আজ সোমবার ( ১২ জুলাই) দুপুরে পার্সনস উইথ সেরিব্রাল পালসি ফাউন্ডেশন (পিসিপিএফ) আয়োজিত ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়ে ভার্চুয়াল দাবা প্রতিযোগিতা ২০২১’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রায় ৪৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে সাভারে প্রতিবন্ধীদের জন্য তৈরি করা হবে অত্যাধুনিক ক্রীড়া কমপ্লেক্স, যাতে থাকছে ২টি বেসমেন্টসহ ১১তলা একাডেমিক ভবন, ডরমেটরি, আবাসিক ভবন, জিমনেশিয়াম, সুইমিংপুল, মসজিদ, ফুটবল মাঠ, গ্যালারি ও ক্রিকেট মাঠ। এই ক্রীড়া কমপ্লেক্স তৈরি করা হলে সকল ধরণের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের খেলাধুলার সুযোগ তৈরি হবে। এর মাধ্যমে তাদের সুস্থ বিনোদনের পথ তৈরি করা সম্ভব হবে। এছাড়াও আমরা জাতীয় সংসদ ভবনের পাশের খোলা মাঠে প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি দৃষ্টিনন্দন ক্রীড়া কমপ্লেক্স

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মনে করেন, সমাজের একজন সুস্থ ও স্বাভাবিক নাগরিকের মতো প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদেরও সমঅধিকার ও সুযোগ পাওয়ার অধিকার রয়েছে। সেই সুযোগ দিয়ে সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনযাপনের পথ তৈরি করা গেলে তাদেরও সমাজের মূলধারায় অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হবে। এর জন্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিশেষ স্কুল, কারিগরি সেবা ও পুনর্বাসন ব্যবস্থা যেমন প্রয়োজন, তেমনি প্রয়োজন ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক পরিবেশ।

প্রধানমন্ত্রী প্রতিবন্ধীদের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক। তার সুযোগ্য কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল অটিজম নিয়ে প্রশংসনীয় কাজ করছেন। ইতিমধ্যে তিনি সারাবিশ্বে এ ক্ষেত্রে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।’

আমাদের দেশের প্রতিবন্ধীরা অত্যন্ত মেধাবী উল্লেখ জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, গত ২৫ বছর স্পেশাল অলিম্পিকে বাংলাদেশ এ পর্যন্ত ২১৬টি স্বর্ণ, ১০৯টি রৌপ্য এবং ৮৪টি ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *