প্রতিরক্ষা ইস্যুতে মোদির সঙ্গে বৈঠকে বসছেন পুতিন

Share Now..

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) ভারতে আসছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। দুই দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীও বৈঠক করবেন বলে জানা গিয়েছে। এই বৈঠকে প্রতিরক্ষা ও প্রযুক্তির মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে একাধিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার পাশাপাশি আফগানিস্তান ইস্যু নিয়েও কথা হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা-সহ কয়েকটি রুশ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার বিষয়ে খুঁটিনাটি চূড়ান্ত হতে পারে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গিয়েছে। এছাড়া দ্রুত ভারতীয় সেনা বাহিনীর হাতে আসছে একে-২০৩ অ্যাসল্ট রাইফেল। আর পুতিনের এই সফরেই দুই দেশের মধ্যে সমরাস্ত্রের লেনদেন নিয়ে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষর হতে পারে। অন্য অস্ত্র সরবরাহ নিয়েও আলোচনা হবে বলে সূত্রের খবর। প্রায় সাড়ে সাত লক্ষ একে-২০৩ অ্যাসল্ট রাইফেল উত্তরপ্রদেশের আমেঠির কারখানা তৈরি হবে।

যদিও রাশিয়া থেকে অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও সে দেশ থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ সরঞ্জাম ভারতে পৌঁছতে শুরু করেছে। আমেরিকার হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে রাশিয়া থেকে এস-৪০০ কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। ২০১৮ সালের অক্টোবরে পুতিনের দিল্লি সফরের সময় এ বিষয়ে চুক্তি সই হয়েছিল। আর আগামীকাল পুতিনের বৈঠকে এই বিষয়টিতে বাড়তি মাত্রা যোগ হবে। চিনের সঙ্গে সীমান্তে সংঘাতের পরিস্থিতির আবহে এই সরঞ্জাম যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, তা আমেরিকাকে বোঝাতে পেরেছে মোদী সরকার। উত্তরপ্রদেশের অমেঠীতে একে-২০৩ অ্যাসল্ট রাইফেল উৎপাদনের প্রশ্নে ভারত, রাশিয়া চুক্তি করতে চলেছে। সব মিলিয়ে সোমবার দফায় দফায় চলবে শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠক।

এছাড়াও পুতিনের সফরের আগে দ্বিপাক্ষিক অর্থনীতি এবং প্রতিরক্ষা সহযোগিতা নিয়ে ‘টু প্লাস টু মেকানিজন’ বৈঠক হওয়ার কথা। সেখানে হাজির থাকতে পারেন রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী ইউরি বরিসভ। সম্প্রতি জ্বালানি সংক্রান্ত একটি দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি সই করেছে দুই দেশ।

আগামীকাল শীর্ষ সম্মেলনের সময়, দুই দেশের শীর্ষনেতারা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সম্ভাবনা পর্যালোচনা করবেন এবং দুই দেশের মধ্যে কৌশলগত অংশীদারিত্ব আরও জোরদার করার উপায় নিয়ে আলোচনা করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.