ফেসবুকে স্ত্রীর আপত্তিকর ছবি দেখে তালাক দিল স্বামী

Share Now..


স্টাফ রিপোর্টার, ঝিননাইদহঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাবেক প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি ভূয়া ফেসবুক আইডি খুলে প্রকাশ করার অপরাধে মেহেদী হাসান মিশা নামের এক যুবক গ্রেফতার হয়েছে। বর্তমানে মিশা কারাগারে থাকলেও তালাক দেওয়া হয়েছে ওই গৃহবধুর। বর্তমানে পিতার বাড়িতে নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে ভুক্তভোগি গৃহবধুর পরিবার। মামলা সুত্রে জানা গেছে, শৈলকুপা উপজেলার ভাটই উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করার সময় ভাটই গ্রামের ওই মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে পার্শবর্তী দুধসর গ্রামের বসির মাস্টারের ছেলে মেহেদী হাসান মিশা। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ৩ বছর আগে ওই মেয়েকে পারিবারিক ভাবে অন্যত্র বিয়ে দেয় তার পরিবার। গত বছরের ৮ জানুয়ারি ওই মেয়ে বাবার বাড়িতে এলে বখাটে মিশা ঘরে প্রবেশ করে মোবাইলে জোরপুর্বক আপত্তিকর ছবি তোলে। বিষয়টি কাউকে বললে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। জীবনের ভয়ে সে সময় মেয়েটি মুখ খোলেনি। বখাটে মিশা ওই মেয়েটিকে অনৈতিক শারিরীক সম্পর্কের প্রস্তাব দিলে মেয়েটি অস্বীকার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটে মিশা ফেসবুকে ভূয়া আইডি খুলে আগে থেকে ধারনকৃত আপত্তিকর ছবি প্রকাশ করে দেয়। এ ঘটনার পর মেয়েটির স্বামী তাকে তালাক দেয়। পরবর্তীতে গত ৬ জুন তার মা বাদী হয়ে শৈলকুপা থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরর পর ওই দিনই আসামী মিশাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায় পুলিশ। বর্তমানে সে কারাগারে রয়েছে। এদিকে আসামী গ্রেফতার হওয়ার পর চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে মেয়েটির পরিবার। মেয়েটির মা বলেন, মিশা কারাগারে থাকলেও তার পরিবার মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে। আমার মেয়েকে তার স্বামী তালাক দিয়েছে। মিশার কারণে তার সংসার ভেঙ্গেছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। লম্পট মিশা জামিনে মুক্তি পেলে আমাদের উপর নির্যাতন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.