ভয়াবহ সংকটে শ্রীলঙ্কা, ৩৬ ঘণ্টার কারফিউ জারি

Share Now..

খাদ্য, তেল ও বিদ্যুতের ভয়াবহ সংকটে শ্রীলঙ্কা। এর জেরে দেশটির প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের বাসভবনের সামনে গত বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) রাতে ব্যাপক বিক্ষোভ ও সহিংসতার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশটি নতুন করে ৩৬ ঘণ্টার কারফিউ জারি করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার (২ এপ্রিল) দেশটির স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সোমবার সকাল ৬ টা পর্যন্ত এই কারফিউ জারি থাকবে।

বিক্ষোভ প্রতিরোধ করতেই এই কারফিউ বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। কারফিউ চলাকালীন প্রয়োজনীয় পরিষেবা ছাড়া শ্রীলঙ্কানদের বাইরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না।

১৯৪৮ সালে স্বাধীনতার পর দুই কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশটি সবচেয়ে খারাপ মন্দার কবলে পড়েছে। দেশটিতে বৈদেশিক মুদ্রার চরম সংকট চলছে, যা দেশটির অর্থনীতিকে বিপর্যয়ের মুখে ফেলছে।

দিনে ১৩ ঘণ্টার জন্য বিদ্যুৎ না থাকা, তেল, খাদ্যপণ্য ও ওষুধ সংকটের কারণে দেশটিতে জনঅসন্তোষ চরমে উঠেছে।

গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের সামনের বিক্ষোভকারীরা ‘পাগল, পাগল বাড়ি যাও’ বলে স্লোগান দিতে থাকে। প্রতিবাদ কর্মসূচিটি শুরুতে শান্তিপূর্ণই ছিল বলে বিক্ষোভকারীরা দাবি করেন।

তাদের অভিযোগ, পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও জল কামান নিক্ষেপের পাশাপাশি লাঠিচার্জ শুরু করলে সেটি সহিংসতায় রূপ নেয়। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়ে। সহিংসতায় ৫০ জনের বেশি আহত হয়েছেন। এ ঘটনার পর গতকাল শুক্রবার সকালেও পুলিশ ৪৫ জনকে আটক করেছে।

পুলিশ বলছে, শতাধিক বিক্ষোভকারী প্রেসিডেন্টের বাসভবনে ঢোকার চেষ্টা করেন। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনী গুলি ও কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। রাতে কারফিউ জারি করা হলেও সকালে প্রত্যাহার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *