মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা

Share Now..

দুঃসংবাদ পাওয়ার মতো ঘটনাটা ভারতের ম্যাচই ঘটে গেছে। আনুষ্ঠানিক ভাবে জেনেছে গতকাল। আগামী ১৫ জুন কাতারে বিশ্বকাপ এবং এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে শক্তিশালী ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশের তিন ফুটবলার খেলতে পারবেন না। এরা হলেন অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া, বিপলু আহমেদ এবং রহমত মিয়া। এই তিন জনের নামে দুটি করে হলুদ কার্ড জমা হয়েছে। দুই হলুদ কার্ড হয়ে গেলে সেই ফুটবলার পরবর্তী ম্যাচ খেলতে পারেন না। এটাই শাস্তি। সেই শাস্তির মুখে পড়ে জাতীয় ফুটবল দলের তালিকা হতে তিন ফুটবলারকে বাদ দিয়ে এখন পরিকল্পনা করতে হচ্ছে।

এটা যেন ফুটবল দলে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা। জাতীয় দলটা বলতে গেলে করোনা আর ইনজুরিতে জর্জরিত। তার ওপর এখন হলুদ কার্ডের প্যাঁচে পড়ে বাংলাদেশের ফুটবল দলের কাহিল অবস্থা।

দুঃসংবাদ আরো আছে। গত ৭ জুন ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যথা পেয়েছেন ডিফেনসিভ মিডফিল্ডার মাসুক মিয়া জনি। তিনিও ওমানের বিপক্ষে নামতে পারবেন না। তাকে দুই সপ্তাহ বিশ্রাম নিতে বলা হয়েছে। জনি না থাকাটা দলের জন্য আরো একটি ধাক্কা। ছিন্নভিন্ন অবস্থা এখন।

এর আগে দোহা হতে হাতের ইনজুরি নিয়ে ঢাকায় ফিরেছেন সোহেল রানা। এই মিডফিল্ডার দলের একাদশের খেলোয়াড়। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে তাকে না পাওয়াটা ছিল অপূরণীয় ক্ষতি।
ফুটবল দল যখন কাতার রওনা হবে তখন ইনজুরির কারণে বাদ পড়েন ফরোয়ার্ড সাদ উদ্দিন। এই ফুটবলারও জাতীয় দলের একাদশের খেলোয়াড়। সল্ট লেকে অ্যাওয়ে ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে গোল করেছিলেন সাদ উদ্দিন। তাকে না পাওয়াটাও ছিল দলের জন্য ক্ষতি। সাদের আগে দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন গোলকিপার আশরাফুল ইসলাম রানা। ইনজুরির কারণে ক্যাম্প ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন রাইটব্যাক বিশ্বনাথ ঘোষ। মাহবুবুর রহমান সুফিলকে নেওয়া হলেও তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে জাতীয় দলের ক্যাম্প হতে বাসায় ফিরে যান। স্ট্রাইকার নাবিব নেওয়াজ জীবন পায়ে অস্ত্রোপচার করায় তাকে ডাকায় হয়নি জাতীয় দলে। এই হচ্ছে জাতীয় ফুটবল দল। এত সংকটের মধ্যে হলুদ কার্ডে জামাল ভুঁইয়া, রহমত মিয়া আর বিপলুর ছিটকে যাওয়া যেন মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা।কোচ জেমি ডে এখন ওমান ম্যাচ নিয়ে ভাবছেন। ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ, পাঁচ দিন বাকি। এর মধ্যে আর কোনো ইনজুরি হয় কি না, কে জানে। তবে শক্তিশালী ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশ সবচেয়ে দুর্বল একটি দল মাঠে নামবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। প্রতিরোধ গড়ে তোলা দূরের কথা, রক্ষণ সামাল দেওয়ার মতো পরিস্থিতিও নেই। ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশ মাঠে নামবে পুরোপুরি ভঙ্গুর একটা দল নিয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *