যুদ্ধের ট্যাঙ্ক পাবে না ইউক্রেন

Share Now..


বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) পেন্টাগন এই ঘোষণা দিয়েছে। জানানো হয়েছে, ইউক্রেনের জন্য বাইডেন সরকার দুই দশমিক পাঁচ বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ তৈরি করেছে। এর মধ্যে ৯০টি স্ট্রাইকার কমব্যাট গাড়ি বা সাজোয়া গাড়ি, ৫৯টি ব্র্যাডলি সাজোয়া গাড়িসহ প্রচুর গোলাবারুদ দেওয়ার কথা আছে। কিন্তু ট্যাঙ্কের উল্লেখ নেই। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) জার্মানিতে অবস্থিত আমেরিকার সেনাঘাঁটিতে জার্মানি ও আমেরিকাসহ একাধিক দেশের বৈঠক হওয়ার কথা। তার আগে অ্যামেরিকা এই ঘোষণা করায় বোঝা যাচ্ছে, জার্মানিও ইউক্রেনকে সম্ভবত ট্যাঙ্ক দেবে না।গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন মঞ্চে ট্যাঙ্ক দেওয়ার দাবি জানিয়েছিল ইউক্রেন। নির্দিষ্ট করে বেশ কিছু জার্মান ট্যাঙ্ক চেয়েছিল তারা। বস্তুত, ইউক্রেনের বক্তব্য শোনার পর পোল্যান্ড জানিয়েছিল, তাদের কাছে ওই জার্মান ট্যাঙ্ক আছে। জার্মানি সবুজ সংকেত দিলেই তারা ওই ট্যাঙ্ক ইউক্রেনের হাতে তুলে দেবে। কিন্তু জার্মান চ্যান্সেলর জানিয়েছিলেন, সব দিক বিবেচনা করে সকলের সঙ্গে আলোচনা করে তবেই সিদ্ধান্ত জানানো হবে। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, আমেরিকার ঘোষণাতেই স্পষ্ট, ইউক্রেনকে এখন ট্যাঙ্ক দেওয়া হবে না। ফলে জার্মানিও সেই একই পথে হাঁটবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আমেরিকার কাছেও অ্যাব্রাম ট্যাঙ্ক চেয়েছিল ইউক্রেন। আমেরিকার বক্তব্য, এই ধরনের অত্যাধুনিক ট্যাঙ্ক এখন ইউক্রেনের পক্ষে ব্যবহার করা কঠিন। এই ধরনের ট্যাঙ্ক চালানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণের প্রয়োজন। ইউক্রেনের সেনাকে এখন সেই প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব নয়।

সে কারণেই তাদের ট্যাঙ্ক দেওয়া হচ্ছে না। অন্যদিকে জার্মান চ্যান্সেলর ওলফ শলৎস জানিয়েছিলেন, আমেরিকা ইউক্রেনকে অ্যাব্রাম ট্যাঙ্ক দিলে তবেই জার্মানি তাদের লিওপার্ড-২ ট্যাঙ্ক ইউক্রেনের হাতে তুলে দেবে। লিওপার্ড-২ ট্যাঙ্কও অত্যাধুনিক। যা চালানোর জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণের প্রয়োজন।

জার্মানিতে মার্কিন সেনাঘাঁটির বৈঠকের পর জার্মানিও ইউক্রেনের জন্য বিশেষ প্যাকেজ ঘোষমা করতে পারে। এদিকে গত একবছরে এই নিয়ে ইউক্রেনকে সব মিলিয়ে ২৬ দশমিক সাত বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ দিল। মার্কিন ঘোষণার পর এখনো পর্যন্ত তা নিয়ে ইউক্রেন কোনো মন্তব্য করেনি।

তবে জেলেনস্কি ফের ট্যাঙ্ক চাইতে পারেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। গত কয়েকদিন ধরে বার বারই জেলেনস্কি জানিয়েছেন, রাশিয়ার স্থলসেনাকে পরাস্ত করতে এই মুহূর্তে বেশ কিছু ট্যাঙ্কের প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *