শৈলকুপায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দু-দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১২, আটক ৬

Share Now..

শৈলকুপা প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় এক কাঠমিস্ত্রী তার পারিশ্রমীকের বাকীটাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দু-দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সকালে উপজেলার ৩নং দিগনগর ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয়পক্ষের ১২ব্যক্তি আহত হয়বলে জানা যায়। আহতদের ঝিনাইদহ সদরহাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় দুটি বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ৬ ব্যক্তিকে আটক করেছে।
এলাকাবাসীরা জানান, গত ৬ মাস আগে রতনপুর গ্রামের হযরত জোয়ার্দ্দার তার ব্যবহারের জন্য কয়েকটি ফার্নিচার তৈরী করেন একই গ্রামের কাঠমিস্রী রণ হোসেনের দিয়ে। দীর্ঘদিন পর রণ তার পারিশ্রমীকের পাওনা ২ হাাজর টাকা হযরতের নিকট চাইলে বুধবার সকালে রণর উপর হামলা চালায় হযরত জোয়ার্দ্দার। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রতনপুর গ্রামের মতিয়ার মেম্বর ও সাইদুল খাঁর সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরেন। এ সময় ওলিয়ারখাঁ,মতিয়ার জোয়ার্দ্দার, শিমুল জোয়ার্দ্দার, এরশাদ জোয়ার্দ্দার,মিন্টুমালিথা, টেন্টুমালিথা, হামিদ জোয়ার্দ্দার, জোয়াদ জোয়ার্দ্দারসহ ১২ ব্যক্তি আহতহন। আহতদের ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের সময় মনসুর জোয়ার্দ্দার ও জোয়াদ জোয়ার্দ্দারের বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসেন এবং ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৬ ব্যক্তিকে আটক করে।
শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: রফিকুল ইসলাম বলেন পাওনাটাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে রতনপুর গ্রামে দু-দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৬ ব্যক্তিকে আটক করে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.